ঢাকা বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ইং | ৬ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বলাৎকারের চেষ্টায় ব্যর্থ-মাদ্রাসা শিক্ষকের গোপনাঙ্গ কাটলো ছাত্র

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০২১, রাত ১০ঃ২৫

১ডিসেম্বর বুধবার রাতে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নে মো. আতাবুর রহমান (২৮)-নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষকের বলাৎকারের অভিযোগে গোপনাঙ্গ কেটে দিয়েছে তারই এক ছাত্র (১৭)।

পরদিন ২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে স্থানীয় এলাকাবাসীর সহায়তায় ওই শিক্ষার্থীকে আটক করলে ভুক্তভোগী ওই শিক্ষকের বাবা বাদী হয়ে নান্দাইল থানায় ওই শিক্ষার্থীকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

আটকের ঘটনাটি গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ব্রিফকালে নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ বলেন-মামলার পরপরই ওই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে আটক দেখিয়ে বিজ্ঞ আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। তবে ভুক্তভোগী ওই শিক্ষক বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে।

এদিকে স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশের দেওয়া তথ্যমতে জানা গেছে যে, ঘটনার দিন রাতে নান্দাইল উপজেলার একটি মাদ্রাসা মাঠে ওয়াজ মাহফিল চলছিল। সেই ওয়াজ মাহফিলে অংশ গ্রহন করেন ভুক্তভোগী শিক্ষক আতাবুর রহমান। ওই ওয়াজের মাধ্যমে ওই শিক্ষকের সাথে দেখ হয় ১৭ বছর বয়সী এক ছাত্রের সাথে। কথা প্রসঙ্গে শিক্ষক আতাবুর রহমান ওই ছাত্রকে তার বাড়ীতে ডাল-ভাত খাওয়ার আমন্ত্রণ জানালে ওই শিক্ষক ও ছাত্র হাঁটতে হাঁটতে শিক্ষকের বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন।

পথিমধ্যে শিক্ষক আতাবুর রহমান ওই ছাত্রের সাথে আপত্তিকর আচরণ করতে থাকে। এমন আচরণ থেকে বিরত থাকতে বললে শিক্ষক তাকে জোরপূর্বক বলাৎকারের চেষ্টা করেন। এমন সময় ওই শিক্ষার্থীর পাঞ্জাবির পকেটে থাকা নখ কাটার দিয়ে শিক্ষকের গোপনাঙ্গ কেটে দেয়। পরে ওই শিক্ষকের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ওই শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।