ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১ ইং | ১ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পবিত্র কোরআন শরীফের উপর পা রাখার দায়ে জুতার মালা পড়িয়ে গ্রাম ছাড়া

প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৬ঃ৩৫

পবিত্র কোরআন শরীফের উপর পা রাখার অপরাধে ময়মনসিংহের মু্ক্তাগাছার আকবর আলী (৬৫) নামের এক বৃদ্ধকে ১২ই অক্টোবর মঙ্গলবার মু্ক্তাগাছা উপজেলার দাঁওগাঁও ইউনিয়নের শুকপাটুলী বাজারে দুপুর ১২টার দিকে জনসমাগম এই গ্রাম্য শালিসের রায়ে জুতারমালা পরিয়ে গ্রাম ছাড়া করা হয়েছে। আগামী ৩ মাস দশ দিন ওই বৃদ্ধ নিজ গ্রামে আসতে পারবেনা বলেও গ্রাম্য শালিসে সিদ্ধান্ত দেন গ্রাম্য শালিসের মাতব্বররা।

এদিকে আকবরের স্ত্রী এবং গ্রামের লোকজনের তথ্যমতে জানা গেছে যে, গত ১১ অক্টোবর সোমবার সকালে তাদের ছোট মেয়ে রহিমার জামাই মঞ্জুরুল ১০ থেকে ১২ জন লোক নিয়ে তাদের বাড়িতে আসে। বড় মেয়ে আয়েশার সাথে ছোট মেয়ে রহিমার পাওনা ৩০ হাজার টাকা নিয়ে ঝামেলা হয়। ছোট মেয়ের জামাই ও তার সাথে আসা লোকজন আমার বৃদ্ধ স্বামী আকবর আলীকে কোরআন ছুয়ে কথা বলার জন্য বললে আকবর আলী কোরআনের উপর এক পা রেখে শপথ করেন। এই দৃশ্য দেখে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে চলে যান এবং নিজের ভুলের জন্য ক্ষমা চান।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে সকাল ১১টার দিকে শুকপাটুলী বাজারে ৩/৪ শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে গ্রাম শালিসের আয়োজন করা হয়। ওই শালিসে নিজের ভুলের বিষয়ে ক্ষমা চাওয়ার পরও উপস্থিত মাতব্বররা বৃদ্ধ আকবর আলীর গলায় জুতার মালা পড়িয়ে সাড়া গ্রাম ঘুরিয়ে ৩১০ দিন গ্রামে আসতে নিষেধ করেন। তার স্ত্রী তালাক হয়ে গেছে নতুন করে তাদের বিয়ে পড়ানোসহ কালিমা পড়ে মুসলমান হওয়ার ফতোয়া জারী করা হয় ওই শালিসে।

মুক্তাগাছা থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন,ফতোয়া দেওয়ার বিষয় নিয়ে এমন কোন ধরনে অভিযোগ আমার কানে আসেনি।