ঢাকা বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ইং | ৬ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

টানা ৩ বারের মত ইউপি চেয়ারম্যান হলেন মহব্বত

প্রকাশিত: ৩০ নভেম্বর ২০২১, রাত ১১ঃ২৬

শেরপুরের নকলা উপজেলাধীন ৫নং বানেশ্বর্দী ইউনিয়নের ২ বারের সফল চেয়ারম্যান মাজহারুল আনোয়ার মহব্বত। তিনি তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে টানা ৩ বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

 

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে ৫নং বানেশ্বর্দী ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মাজহারুল আনোয়ার (মহব্বত) আনারস প্রতীক নিয়ে ৪,৮১৪ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন; তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার জাকির হোসেন (ফারুক) চশমা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২,৬১০ ভোট। আর নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আঞ্জুমান আরা বেগম (রুমী) ২,১৩০ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন।

 

উল্লেখ্য, এ ইউনিয়নের কোন কেন্দ্রেই নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সর্বোচ্চ ভোট পায়নি!

 

জানা গেছে, ২০১১ সালে বানেশ্বর্দী ইউপিতে প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মাজহারুল আনোয়ার মহব্বত। এরপর ২০১৬ সালে দ্বিতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে ও এবার তৃতীয় ধাপে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হিসেবে বেসরকারিভাবে তিনি বিজয়ী হন। এছাড়াও তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে পালন করে আসছেন।

 

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের বাবা। এলাকার মানুষের কাছে তিনি সৎ ও ন্যায় পরায়ণ চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচিত। মূলত এ কারণেই তিনি বার বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বলে দাবি ভোটারদের।

 

এ বিষয়ে মাজহারুল আনোয়ার মহব্বতের সাথে কথা বলে জানা যায়, তিনি দীর্ঘ দিন এলাকার মানুষের বিপদে-আপদে পাশে রয়েছেন। করোনা নামক মহামারীতে অসহায়, দারিদ্র দিনমজুর এবং সকল ধরনের মানুষের পাশে থেকে আর্থিক ভাবে সাধ্যমত সহযোগীতা করে এলাকার বহু মানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানেও অসহায়,নির্যাতিত,অবহেলিত মানুষদের পাশে অবস্থান নেয়ার প্রাণপন চেষ্টা চালাচ্ছেন। এ বিজয় তারই প্রমাণ।

 

তিনি আরও বলেন,আমি ইউনিয়নবাসীর কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমি চেষ্টা করেছি সুখে-দুঃখে এলাকাবাসীর পাশে থাকতে। ‘আমার প্রতি মানুষের ভালোবাসা আছে। ভোটাররা বারবার আমাকে নির্বাচিত করেন। আমি তাঁদের ভালোবাসা ও বিশ্বাস রক্ষায় কাজ করে চলেছি। আমি সব ভোটার ও নেতা-কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এ বিজয় সাধারণ মানুষের বিজয়।

 

নির্বাচনের সকল কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় রিটার্নিং অফিসার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব (র‌্যাব-১৪), পুলিশ প্রশাসন, পুরুষ ও মহিলা আনসার-ভিডিপি সদস্য, স্টাইকিং ফোর্স ও ব্যাটেলিয়ান, প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার, পোলিং এজেন্টসহ নির্বাচক মন্ডলীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সুধী মহলসহ সাধারণ ভোটারগণ।